ads

জাতীয়

"প্রধানমন্ত্রী" মধুখালী-মাগুরা রেলপথ নির্মাণের উদ্বোধন করলেন

  • অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশিত ২৭ মে ২০২১

ফরিদপুরের মধুখালী থেকে কামারখালী হয়ে মাগুরা পর্যন্ত নতুন রেল লাইন নির্মাণ প্রকল্পের ভিত্তিফলক উন্মোচন এবং চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে ‘ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন’ এর উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
বৃহস্পতিবার গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এ অনুষ্ঠানে যুক্ত হয়ে তিনি বলেছেন, বাংলাদেশে রেওলয়ের সেবা উন্নত করার ‘যথেষ্ট সুযোগ’ তিনি দেখছেন। “বাংলাদেশ এখন ডিজিটাল বাংলাদেশ। অনলাইনে কেনাবেচা হচ্ছে, অনলাইনে ব্যবসা-বাণিজ্য হচ্ছে। এবং রেল তার একটা বড় মাধ্যম। যার মাধ্যমে এই পণ্য পরিবহন করতে পারবে। কাজেই সেদিক থেকে রেলকে আরো উন্নত করার যথেষ্ট সুযোগ রয়েছে।

নতুন রেললাইন নির্মাণ প্রকল্পের ভিত্তিফলক উন্মোচন এবং ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেনের উদ্বোধন ঘোষণা করে সরকারপ্রধান বলেন, “রেলের উন্নয়ন... আমি মনে করি এটা বাংলাদেশের জন্য, বাংলাদেশের মানুষের জন্য, আর্থ সমাজিক উন্নয়নের জন্য যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ।  সারাদেশে রেল যোগাযোগ বৃদ্ধি এবং রেলপথের উন্নয়নে সরকারের নেওয়া বিভিন্ন পদক্ষেপের কথাও অনুষ্ঠানে তুলে ধরেন শেখ হাসিনা।  

এ অনুষ্ঠানের আগে ডাক ভবনের উদ্বোধনের প্রসঙ্গ তুলে ধরে তিনি বলেন, “ডাক বিভাগের যে সেবাটা, সেটা রেলের মাধ্যমে সমগ্র বাংলাদেশে যাতে পৌঁছায়, তার ব্যবস্থাও আমরা নিচ্ছি। কৃষকদের উৎপাদিত পণ্য বা শিল্পে উৎপাদিত পণ্য বাজারজাত করা বা রপ্তানি করার ক্ষেত্রে এটা (রেল) অনেক বেশি সুযোগ সৃষ্টি করবে। অন্যদের মধ্যে রেলমন্ত্রী মো. নুরুল ইসলাম সুজন, রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. সেলিম রেজা অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন।

নতুন রেলপথ

ফরিদপুরের মধুখালী থেকে কামারখালী হয়ে মাগুরা শহর পর্যন্ত নতুন রেললাইন স্থাপনে সরকারের ব্যয় হবে ১২০২ কোটি টাকা। প্রকল্পটি মাগুরা জেলাকে দেশের বিদ্যমান রেলওয়ে নেটওয়ার্কের সঙ্গে যুক্ত করবে। চায়না রেলওয়ে ইঞ্জিনিয়ারিং করপোরেশন (সিআরইসি), বাংলাদেশের ক্যাসেল কনস্ট্রাকশন কোম্পানি লিমিটেড (সিসিসিএল) ও মীর আখতার হোসেন লিমিটেড (এমএএইচএল) যৌথভাবে এই নির্মাণ কাজ করবে। এ প্রকল্পের আওতায় মধুখালী থেকে কামারখালী হয়ে মাগুরা শহর পর্যন্ত ১৯.৯০ কিলোমিটার মেইন লাইন নির্মাণ, কামারখালী ও মাগুরা স্টেশন ইয়ার্ডে ৪.৯ কিলোমিটার লুপ লাইন নির্মাণ, দুটি নতুন স্টেশন নির্মাণ (কামারখালী ও মাগুরা) হবে। পথে ২৮টি ছোট সেতু ও কালভার্টও নির্মাণ করতে হবে।

 

ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন

মহামারীকালে লকডাউনের মধ্যে দেশের উত্তরাঞ্চল থেকে আম পরিবহনে যাতে সমস্যা না হয়, সেজন্য গত বছরের মত এবারও বিশেষ ট্রেন চালু করেছে বাংলাদেশ রেলওয়ে। ম্যাংগো স্পেশাল-১ ও ২ নামে এই পার্সেল ট্রেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ-রহনপুর-আমনুরা-রাজশাহী-ঢাকা-রহনপুর রুটে প্রতিদিন চলাচল করবে। শুরুতে মোট ছয়টি ওয়াগন নিয়ে এ ট্রেন চালু হয়েছে; প্রতি ওয়াগনে পরিবহন করা যাবে ৪৪ টন আম। চাঁপাইনবাবগঞ্জ, রহনপুর ও আমনুরা থেকে ঢাকা পর্যন্ত প্রতি কেজির পরিবহন খরচ পড়বে ১ টাকা ৩০ পয়সা।

আমের সঙ্গে এই ট্রেনে সব ধরনের শাকসবজি, ফলমূল, ডিমসহ অন্যান্য কৃষিপণ্য এবং রেলওয়ের আইনে পার্সেল হিসেবে বহনযোগ্য সব সামগ্রীও পরিবহন করা হবে।  যতদিন আম পরিবহনের চাহিদা থাকবে ততদিন এ ট্রেন চলাচলের পরিকল্পনা করেছে রেলওয়ে। প্রয়োজনে বগি আরও বাড়ানো হবে বলেও ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন



Arthobazar